কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd মার্চ ২০২০

চঁfপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় বঙ্গবন্ধু কৃষি উৎসব অনুষ্ঠিত


প্রকাশন তারিখ : 2020-03-17

গত ১৭/০৩/২০২০ ইং তারিখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালন উপলক্ষে  আলাতলী ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে চঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর আয়োজনে “বঙ্গবন্ধু কৃষি উৎসব” অনুষ্ঠিত হয়।

সদর উপজেলার উপজেলা কৃষি অফিসার, কৃষিবিদ মোছা: কানিজ তাসনোভা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা  করেন। উদ্বোধনী  বক্তব্যে প্রধান প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই বলেন, যার জন্ম না হলে এই স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম হতনা, সেই মহান রাষ্ট্র নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি আরো বলেন আজ আমরা ধর্ম গোত্র ভাগ করি কিন্তু তিনি কৃষক, শ্রমিক, চাকুরিজীবি, হিন্দু, মুসলিম সকলকেই একত্রে তাঁর ভাষণে প্রথমেই বলেছিলেন ভায়েরা আমার। এতে করে বোঝা যায় এদেশের সকল মানুষ তাঁর হৃদয়ে ছিল। তিনি যখন ক্ষমতায় আসলেন প্রথমেই এদেশের আপামর কৃষকের জন্য কৃষি সম্প্রসারণসহ বিভিন্ন কৃষিগবেষণা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছিলেন। 
 
আজ আমরা যদি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ করি তাহলে বাংলাদেশে আর অভাব থাকবে না। সবুজায়িত হবে বাংলা আমরা পাবো সবুজ পৃথিবী।  বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজগুলি আমাদেরকেই সমাপ্ত করতে হবে। তিনি আরো বলেন সার কৃষকের  ক্রয় ক্ষমতার বাইরে ছিল তাঁরই কন্যা বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার সারের দাম কমিয়ে পানির দামে সার দিচ্ছেন। তিনি সবসময় চান এদেশের মানুষ যেন তিন বেলা খেয়ে সুখে শান্তিতে থাকতে পারে। সেই সাথে কৃষি বিপ্লবের জননী শেখ হাসিনার প্রতি ও কৃতজ্ঞতা জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির আসন গ্রহণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব মো: আ: হান্নান, সদর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, কৃষিবিদ মো: সলেহ আকরাম, এবং কোদালকাটি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: সাবের আলী । এতে সভাপতিত্ব করেন আলাতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মো: কামরুল হাসান কামাল ।
বিশেষ অতিথিদ্বয় তাঁদের নিজ নিজ বক্তব্যে বলেন, আগামী প্রজন্ম কে সুস্থ্য-সবল ও মেধাবী জাতি হিসেবে গড়তে হলে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনের কোন বিকল্প নেই। খাদ্য ও পুষ্টিগুন বিবেচনায় রেখে সবুজের দেশ বাংলাদেশকে জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে উপস্থিত দর্শনার্থীদের জোর দাবী জানান।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সদর উপজেলার উপসহকারী- কৃষি কর্মকর্তা মো: ইব্রাহিম হোসেন।

উক্ত অুষ্ঠানে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রোনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, কৃষি তথ্য সাভিসের প্রতিনিধিসহ প্রায় ২৫০ জন  উপস্থিত ছিলেন।
 

Share with :

Facebook Facebook